ইরাকে পার্লামেন্টের ভেতরে ঢুকে বিক্ষোভ

বিক্ষোভে উত্তাল ইরাক। ইরান সমর্থিত দলগুলোর প্রধানমন্ত্রীর জন্য মনোনীত ব্যক্তির বিরুদ্ধে বিক্ষোভে কয়েকশ’ ইরাকি বিক্ষোভকারী বুধবার (২৭ জুলাই) পার্লামেন্টের ভেতরে ঢুকে পড়ে। তারা ইরানবিরোধী স্লোগান দিতে থাকে। বিক্ষোভকারীদের অধিকাংশই ছিল প্রভাবশালী শিয়া নেতা মুকতাদা আল-সদরের অনুসারী।

ইরাকের পার্লামেন্টের স্পিকারের টেবিলে শুয়ে থাকতে দেখা গেছে এক বিক্ষোভকারীকে। ছবি: গেটি ইমেজেস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিক্ষোভকারীদের সংসদের মেঝেতে টেবিলের ওপর দিয়ে হেঁটে যেতে, আইনপ্রণেতাদের চেয়ারে বসে ইরাকি পতাকা নাড়াতে দেখা গেছে। কেন্দ্রীয় নির্বাচনের প্রায় দশ মাস পর এই ঘটনা ইরাকের রাজনৈতিক সংগ্রামকে সামনে এনেছে।

বিক্ষোভকারীরা বলেন, এখন ইরাকি জনগণ প্রত্যেক সম্মানিত ব্যক্তি এবং রাজনীতিবিদকে জনগণের অর্থের চোরদের জবাবদিহি করতে বলছে। পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে, আমরা সমস্ত দুর্নীতিবাজকে জবাবদিহি করতে এবং তালিকার শীর্ষে রাখার দাবি জানাচ্ছি।

বিক্ষোভের সময় পার্লামেন্টে কোনো আইনপ্রণেতা উপস্থিত ছিলেন না। শুধু নিরাপত্তা বাহিনী ভবনের ভেতরে ছিল এবং তারা বিক্ষোভকারীদের প্রবেশে খুব একটা বাধা দেয়নি বলে জানা গেছে।

অক্টোবরে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর এটি ছিল সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ এবং দ্বিতীয়বার আল-সদর এই মাসে তার রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের কাছে একটি বার্তা পাঠাতে জনসাধারণকে একত্র করার ক্ষমতা ব্যবহার করেছেন। এর আগে জুলাইয়ের শুরুর দিকে, হাজার হাজার মানুষ একটি গণপ্রার্থনার জন্য তার আহ্বানে সাড়া দিয়েছিল, যা অস্থিতিশীল বিক্ষোভে পরিণত হবে বলে অনেকে ভেবেছিল।

তার অনুসারীরা পার্লামেন্ট দখল করার কয়েক ঘণ্টা পরে, আল-সদর টুইটারে একটি বিবৃতিতে সমর্থকদের বলেন নিরাপদে সবাইকে বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য। এর কিছুক্ষণ পরই নিরাপত্তা বাহিনীর তদারকিতে বিক্ষোভকারীরা পার্লামেন্ট ভবন থেকে বেরিয়ে যেতে শুরু করে।