কৃচ্ছ্রসাধনের মাধ্যমে ব্যয় করতে ইউএনওদের নির্দেশনা

কৃচ্ছ্রসাধনের মাধ্যমে ব্যয় করা এবং অর্থবছরের শেষ পর্যায়ে তড়িঘড়ি করে অর্থ ব্যয় করার প্রবণতা পরিহার করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) নির্দেশ দিয়েছে সরকার। ব্যয় নির্বাহের ক্ষেত্রে এ ধরনের একগুচ্ছ শর্ত দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

৭ জুলাইয়ের সই করা পত্রে এসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এর আগে সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ এবং গাড়ি কেনায় লাগাম টানে সরকার। এখন ইউএনওর কার্যালয়গুলোর চলতি অর্থবছরের (১ জুলাই থেকে আগামী বছরের ৩০ জুন) জন্য পরিচালন কার্যক্রমের ব্যয় নির্বাহের বিষয়ে কৃচ্ছ্রসাধনসহ একগুচ্ছ শর্তে বাজেট বরাদ্দ ও খরচের মঞ্জুরি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এসব শর্তের মধ্যে রয়েছে: বরাদ্দ করা অর্থের অতিরিক্ত ব্যয় করা যাবে না; বরাদ্দপত্রের বিষয়ে জিজ্ঞাসা থাকলে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করে অবশ্যই মন্ত্রণালয়কে তা অবহিত করতে হবে; বরাদ্দ করা অর্থ সরকারের প্রচলিত আর্থিক ও প্রশাসনিক নিয়মগুলো প্রতিপালন সাপেক্ষে কৃচ্ছ্রসাধনের মাধ্যমে ব্যয় করতে হবে; অর্থবছর শেষে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে ব্যয়ের বিবরণীসহ প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে হবে।

শর্তের মধ্যে আরও রয়েছে বিদ্যুৎ বিল নিয়মিত পরিশোধ করতে হবে। কোনো কারণে বিদ্যুৎ বিল বকেয়া হলে, তার কারণ ব্যাখ্যা করে অতিরিক্ত বরাদ্দের চাহিদাপত্র পাঠাতে হবে। বরাদ্দ করা বাজেটের ভিত্তিতে অর্থবছরের শুরুতেই বাজেট বাস্তবায়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে এবং সে পরিকল্পনা অনুসরণ করে ব্যয় করতে হবে। এ ছাড়া বেতন–ভাতার বাজেট বরাদ্দ সীমার মধ্যে আছে কি না, তা পর্যবেক্ষণ করা, অতিরিক্ত বরাদ্দের প্রয়োজন হলে যথাসময়ে অতিরিক্ত বরাদ্দের চাহিদাপত্র পাঠাতে বলা হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় আরও রয়েছে, জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উদ্‌যাপন ও জনপ্রশাসন পদক প্রদান, উন্নয়ন মেলা এবং আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবসসহ অন্যান্য জাতীয় দিবস উদ্‌যাপনের জন্য পরবর্তী সময়ে চাহিদার ভিত্তিতে অনুষ্ঠান খাত থেকে বরাদ্দ দেওয়া হবে। শুধু শুদ্ধাচার পুরস্কার ছাড়া অন্য কোনো খাতের ব্যয় পুরস্কার খাত থেকে দেওয়া হবে না। কম্পিউটার ও অফিস সরঞ্জাম খাতে চাহিদার ক্ষেত্রে বিদ্যমান কম্পিউটার ও অফিস সরঞ্জামের সংখ্যা, কবে কেনা হয়েছিল, মেরামতযোগ্য কি না ইত্যাদি বিস্তারিত তথ্য দিতে হবে। আর আসবাবপত্রের চাহিদার ক্ষেত্রে যৌক্তিকতাসহ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত ছকে বরাদ্দ চাইতে হবে।

কর্মচারীদের পোশাকের চাহিদাপত্রের ক্ষেত্রে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কল্যাণ শাখার পরিপত্রের নির্দেশনা অনুসারে পোশাকের প্রাপ্যতা হিসাব করে বরাদ্দ চাইতে বলা হয় এই নির্দেশনাপত্রে। ইউএনওদের সার্বক্ষণিক শারীরিক ও বাসভবনের নিরাপত্তায় নিয়োজিত মোট ১০ জন সশস্ত্র আনসার সদস্য ছাড়া অতিরিক্ত কোনো আনসার সদস্যদের বেতন ও ভাতা এ মন্ত্রণালয়ের বাজেট থেকে পরিশোধ না করার জন্য ইতিমধ্যে দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয় ওই নির্দেশনাপত্রে। এতে বলা হয়, সশস্ত্র আনসার সদস্যদের বেতন ও ভাতা পরিশোধের সময় চলতি অর্থবছরের বরাদ্দ থেকে বিগত (২০২১-২২) অর্থবছরের কোনো বকেয়া পরিশোধ করা যাবে না। চলতি অর্থবছরে উপজেলায় নিয়োজিত আনসার সদস্যদের বেতন ও ভাতা নিরাপত্তাসেবা (ভাড়ার ভিত্তিতে) খাত থেকে পরিশোধের জন্য ইউএনওদের অনুরোধ করা হয় এই নির্দেশনাপত্রে।