সন্ত্রাসীদের শনাক্তে ব্রিকস সদস্যদের পরস্পরকে সমর্থন দিতে হবে: মোদি

ব্রিকস সদস্য দেশগুলোর একে অন্যের নিরাপত্তা উদ্বেগ বোঝা উচিত। সন্ত্রাসীদের চিহ্নিত করতে পরস্পরকে সমর্থন দেওয়া উচিত। স্পর্শকাতর বিষয়ের ‘রাজনীতিকরণ’ উচিত নয়। ব্রিকস সম্মেলনে দেওয়া ভাষণে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এসব কথা বলেছেন। খবর এনডিটিভির।

দুই দিনব্যাপী ব্রিকস সম্মেলন গত বৃহস্পতিবার শুরু হয়। ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকার অর্থনৈতিক জোট সংক্ষেপে ব্রিকস নামে পরিচিত। গত দুই বছরের মতো এবারও ভার্চ্যুয়ালি এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

কিছুদিন আগে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা কমিটির বিধির আওতায় পাকিস্তানি নাগরিক আবদুল রহমান মক্কিকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী ঘোষণার যৌথ প্রস্তাব দেয় ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র। তবে প্রস্তাবটি আটকে দেয় চীন। ব্রিকস সম্মেলনের ভাষণে মোদি মূলত সে বিষয়টির প্রতি ইঙ্গিত করেছেন।

চীন আয়োজিত এই শীর্ষ সম্মেলন শেষে এক বিবৃতিতে মোদির বক্তব্যের বিস্তারিত জানায় ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সম্মেলনে আফ্রিকা, মধ্য এশিয়া ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল থেকে ক্যারিবীয় অঞ্চল পর্যন্ত উন্নয়ন অংশীদারত্বের ওপরও জোর দেন তিনি।

বিবৃতিতে বলা হয়, বহুপক্ষীয় ব্যবস্থার সংস্কার, কোভিড-১৯ মহামারি ও বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে মতো বৈশ্বিক ইস্যুগুলোর পাশাপাশি বৃহস্পতিবার নেতারা সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলা, বাণিজ্য, স্বাস্থ্য ও কৃষিসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন।