৫২ বছরে চিত্রনায়ক নাঈম

১৯৭০ সালের ৮ মে জন্মগ্রহণ করেন ঢাকাই সিনেমার সোনালি প্রজন্মের নায়ক নাঈম। খুব অল্প কিছু সিনেমায় অভিনয় করেই তিনি কুড়িয়েছিলেন দর্শকের প্রশংসা। আর পেয়েছিলেন চিত্রনায়িকা শাবনাজকে।

‘তুমি এসেছিলে পরশু, কাল কেন আসোনি’- গানটিতে ঠোঁট মিলিয়ে চলচ্চিত্র জগতে সাড়া ফেলেছিলেন চিত্রনায়ক নাঈম। চোখে ভেসে ওঠা ভীষণ স্মার্ট আর সুদর্শন সেই বাংলা সিনেমার নায়ক এখন আর সিনেমাতেও নিয়মিত নন। তবু তার প্রতি দর্শকের সেই ভালোলাগা আজও একই আছে। এখন তিনি একজন পাকা সংসারীও বটে।

নবাব বংশের সন্তান নাঈম। তার পুরো নাম খাজা নাঈম মুরাদ। মায়ের সূত্রে টাঙ্গাইল করটিয়া জমিদার বাড়ির সন্তান এ নায়ক। এবারে তিনি ৫২তম বছরে পা রাখলেন।

ছোটবেলা থেকেই পড়াশুনার পাশাপাশি গান বাজনার প্রতি প্রবল আকর্ষণ ছিল নাঈমের। ১৯৯১ সালের ৪ অক্টোবর ‘চাঁদনী’ ছবির মুক্তির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে যাত্রা শুরু হয় তার। প্রথম ছবিই সুপারহিট। এতে তার বিপরীতে ছিলেন শাবনাজ। ছবিটির মাধ্যমে নতুন নায়ক-নায়িকা হিসেবে আলোচনার শীর্ষে উঠে আসেন এই জুটি।

এরপর ‘লাভ’, ‘চোখে চোখে’, ‘দিল’, ‘টাকার অহংকার’, ‘ঘরে ঘরে যুদ্ধ’, ‘সোনিয়া’, ‘অনুতপ্ত’সহ বেশ কয়েকটি ছবিতে শাবনাজের সাথে জুটি বাধেন নাইম। প্রায় ২০টির মতো ছবিতে এই জুটিকে দেখা গেছে। নাইম-শাবনাজ জুটির প্রতিটি ছবিই জনপ্রিয় ও ব্যবসাসফল।

এক সঙ্গে অভিনয়ের তিন বছরের মাথায় শাবনাজকে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন নাঈম। ১৯৯৪ সালের ৫ অক্টোবর ভালোবেসে বিয়ে করেন তারা। চিত্রনায়ক নাইম এখন দুই কন্যা সন্তান আর শাবনাজকে নিয়ে বেশ সুখেই দিন কাটাচ্ছেন।