সরকারের শীর্ষ পর্যায়ে নারীদের রাখবে না তালেবান

আফগানিস্তানে শিগগিরই নতুন সরকার গঠন করতে যাচ্ছে তালেবান। সেই সরকারের রুপরেখা কেমন হবে কিংবা এতে কারা কারা থাকছেন, এ বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি। তবে সরকারের শীর্ষ পর্যায়ে কোনো নারী প্রতিনিধি থাকছে না বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন কাতারে তালেবানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের ডেপুটি প্রধান ইনায়াতুলহক ইয়াসিনি।

বিবিসি পশতু’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সরকার ও প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে প্রায় অর্ধেক সংখ্যক নারী। তাদেরকে কাজে ফেরার আহ্বান জানানো হয়েছে এবং তারা কাজ করে যেতে পারবেন।‘নিজেকে বন্দী মনে হয়’, বলছেন তালেবান নিয়ন্ত্রিত শহরের বাসিন্দারাতবে নতুন সরকারের শীর্ষ পর্যায়, বিশেষ করে মন্ত্রীসভায় কোনো নারী প্রতিনিধি সম্ভবত থাকছে না, যোগ করেন তিনি।

জাতিগত সংখ্যালঘুরা তালেবান সরকারে থাকবে কি-না? এমন প্রশ্নের জবাবে ইনায়াতুলহক ইয়াসিনি বলেন, আফগানিস্তানে বসবাস করা সব জাতিগত সংখ্যালঘুরা আফগান এবং তাদের সরকারে থাকার অধিকার রয়েছে। তবে নতুন সরকারে তারাই নিয়োগ পাবেন, যাদের কাজ অনুযায়ী দক্ষতা এবং যোগ্যতা রয়েছে।

 

এদিকে, সরকার গঠন নিয়ে তালেবানের প্রভাবশালী নেতাদের নিয়ে সম্মেলন করেছেন গোষ্ঠীটির প্রধান ধর্মীয় নেতা মোল্লা হেবাতুল্লাহ আখুন্দজাদে। তার সভাপতিত্বে গত তিন দিন ধরে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, প্রধান নেতার সভাপতিত্বে কান্দাহারে গত শনিবার সম্মেলন শুরু হয়ে শেষ হয় সোমবার। এই সম্মেলনে সরকার গঠন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রিসভার নানা দিক নিয়ে কথা হয়েছে।